Make your own free website on Tripod.com

নববর্ষের বাণী

 

 

 

দুঃখ দৈন কাটিয়া যাউক, শোক তাপ মুছিয়া যাউক, আত্মপ্রেম বিশ্বপ্রেমের ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠিত হউক, বিশ্বপ্রেম কল্পনার কুহেলীমাএ না থাকিয়া জীবনের কর্ম্মে বা বাস্তবের নবরূপায়ন লাভ করুক| তোমাদের প্রতিজনের জীবন বিশ্ব-মানবের জীবন হউক| প্রতিদানে তোমরা বিশ্বের প্রতি জীবের প্রতিনিধি রূপে সকলের হিত চিন্তা করিয়া সকলের কূশল সাধিয়া অভ্রান্ত পদবিক্ষেপে ভূমণ্ডলে বিচরণ কর|

 

দুঃখ-দারিদ্র্য দেখিয়া ভয় পাইও না| দারিদ্র্যের সহিত সংগ্রাম করিতে গিয়া নিজ মনুষ্যত্বের প্রকৃত পরিচয় দিবার সুযোগ যতবার পাইয়াছ, দায়-দায়িত্ব-পরোয়াহীন ঐশ্বর্যের হৈম পালঙ্কে শয়ন করিয়া তাহা পাইতে না| এই জন্যই ধনীর গৃহে সররাচর অধিকাংশ অপদার্থেরা জন্ম নেয়| নিজের দারিদ্র্যকে বিদ্বেষের চক্ষে দেখিও না| দারিদ্র্যেরই চীরদুঃখহর দাক্ষিণ্যে তোমার ভিতরের দেবতা দিনের পর দিন পৌরুষের প্রচণ্ড প্রভায় স্পষ্টতর ও উজ্জলতর মুর্ত্তিতে আবির্ভূত হইতেছেন| দারিদ্রকে সন্মান কর, দুঃখকে পূজা কর, ক্লেশ-কষ্ট-অপমানকে শ্রদ্ধা করিতে শিখ| ভগবানই তোমাকে বলশালী করিবার জন্য এই সব অবাঞ্ছিত রূপ ধারণ করিয়া আসিয়াছেন ও আসিতছেন|

 

তোমাদের যে শক্ত্তি কত, তাহা তোমরা জান না| তাই অত আত্ম-অবিশ্বাস| যদি শুধু অনুশীলন কর, তাহা হইলে তোমাদের একটি ক্ষীণতম ইচ্ছার দ্বারা জগৎ. ব্রহ্মাণ্ডে অভাবনীয় কাণ্ড তোমরা ঘটাইয়া দিতে পার| সাত্ত্বিক রুচী লইয়া আত্মশক্ত্তির বিকাশে যত্নবান হও|

 

বিশ্বাসী আমৃত্যু নিজ লক্ষে লাগিয়া থাকে| অবিশ্বাসী বারংবার দিক পরিবর্ত্তন করে| বিশ্বাসের বলে ভাঙ্গা নৌকাতেই তুমি উত্তাল-তরঙ্গ-সঙ্কুল মহাসমুদ্র অবহেলে পার হইয়া যাইবে| বিশ্বাস ছাড়িও না|

 

শত্রুমিত্র সকলেরে জানিয়া আপন,

সকলের হিত কর্ম্মে সঁপ তনু মন|

 

 

 

 

                                                                                                                          পরের পাতা